শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:০০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে দেশটাকে পরিষ্কার করি দিবস শপথ পাঠ মানিকগঞ্জে নদীর পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু জি কে শামীমকে গুলশান থানায় হস্তান্তর মা হলেন কারাগারে নুসরাতের বান্ধবী মনি খোঁজ মিলছে না জয়পুরহাটের ফজলুল হক চৌধুরীর হাতিরঝিলের লেক থেকে ভেসে উঠা অজ্ঞাত ব্যক্তির মরাদেহ উদ্ধার বোয়ালখালীতে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ কিশোর আটক! সোনাগাজীতে বিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য ভূমি অধিগ্রহন বসতভিটা রক্ষায় বিক্ষোভ সমাবেশ বোয়ালখালীতে পবিত্র যিকরুল কুরআন মাহফিল অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলাকারী আলোচিত সন্ত্রাসী মুসার সহযোগী কাশেম গ্রেফতার নরসিংদীতে ব্যাংক কলোনী সমাজ উন্নয়ন সংস্থার সদস্যের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন অন্যান্য সদস্যরা বহিষ্কার করা হয়েছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে সরকারি সহযোগিতার অপেক্ষায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কাশেম ও তার পরিবার ! সাটুরিয়ার রাধা নগর গ্রামের বকাটে সুমনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় মামলা দায়ের ঝালকাঠিতে ৩৪ বছরেও মেলেনি প্রতিবন্ধী রহিমার প্রতিবন্ধী ভাতা নবীগঞ্জে একই পরিবারে ৩ জনের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ হরিপুর সীমান্তে মৃতলাশ উদ্ধার নরসিংদীতে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় তিন সংবাদ কর্মীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্ত আইনে মামলা দায়ের কঠোর নজরদারিতে রাজধানীর ক্যাসিনো বা জুয়ার আড্ডা ঝালকাঠিতে ৬ষ্ঠ শ্রেণির স্কুল ছাত্রী সন্তানের মা হলেও বাবার পরিচয় নিয়ে সংশয়
খেয়া পারের তরুণী ২ টাকার লোভে প্রাণ

খেয়া পারের তরুণী ২ টাকার লোভে প্রাণ হারাল একটি শিশুর

ফাইল ছবি

আবু সায়েম মোহাম্মদ সা’-আদাত উল করীম: ৩১ মে নারায়নগঞ্জ – নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে আজ একটি শিশুর করুণ মৃত্যুর সাক্ষী হয়ে গেলাম প্রত্যক্ষদর্শী রুবেল খান এভাবেই বলছিলেন। আজ শুক্রবার নারায়ণগঞ্জ জেলায় প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৮। অন্য সময়ের পরীক্ষা চেয়ে ছিল একটু ভিন্ন। পরীক্ষা শেষে বাসায় আসার জন্য নবীগঞ্জ ঘাটে এসে বন্ধুবান্ধবদের সাথে আসার জন্য খেয়াঘাটের যাত্রী ছাউনির বিশিষ্ট চেয়ার কোচে বসে ছিলাম সাথে বসে ছিল কয়েকজন ফায়ারসার্ভিসের সদস্য যারা নাকি ফেসবুক ব্যবহার করছিলো বরং তাদেরকে এখানে নিয়োগ করা হয়েছিল অপ্রত্যাশিত দূর্ঘটনা ও নিয়মশৃঙ্খলা অবলম্বনের জন্য জনগণকে সচেতন করা। বসে বসে দেখছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলায় তার মতো কতো হাজার হাজার শিক্ষিত বেকার পরীক্ষা দিয়ে (মহিলা-পুরুষ) কিভাবে বাসায় যাওয়ার জন্য তারাহুরো করছে। কারণ টাও যে ছিলো বিশেষ, আজ যে ছিল শুক্রবার। স্হানীয় সংসদ সদস্য খেয়াঘাট ফ্রি করে দিয়েছেন ঠিকই কিন্তু জনগণনকে করে দিয়েছেন মাঝিদের কাছে জিম্মি। মাঝিরা এই সুযোগের যথাযথ সদ্যব্যবহার করছে। ১০-১৫ জনের নৌকায় তারা গাদাগাদি করে নেয় ২০/২৫ জন। (জন প্রতি ২টাকা) যাত্রীরা গালাগালি করলেও কে শুনে কার কথা।এ যেন দেখার কেউ নেই। লোভী এই মাঝিরা আজ যেন এই যাত্রীর ভীর দেখে হয়ে গেছে অচেতন ও বিবেকহীন।কোনো দিকেই খেয়াল না করে চালাচ্ছে ইচ্ছেমতো গতিবেগে তাদের নিরাপদহীন পঙ্খীরাজ। যা-ঘটেছিল প্রতক্ষ্যদর্শী রুবেলখান আরো বলেন :বেলা তখন ১২:৩০ মিনিট হবে চেয়ার কোচে বসে দেখছিলাম ৩/৪ জন ১০/১২ বছরের শিশু পানিতে লাফালাফি করে নিজ আনন্দে গোছল করছে, হঠাৎ করেই দৃষ্টিকোণে ভেসে উঠলো এক করুন কাহিনী যা কল্পনার বাহিরে ছিলো এক রাক্ষসরুপী মাঝি তারাহুরো করে নদী পার করার জন্য কোনো দিকে খেয়াল না করে নৌকার মোচড় ঘুড়াতে পানিতে খেলা করা একটি শিশু তার নিরাপদহীন পঙ্খীরাজের পাখার কবলে পরলো সাথে সাথেই শীতলক্ষ্যার কালো পানি হয়ে গেল লাল চারদিকে শুধু হৈচৈ সাথে থাকা আরেকজন খুজে উঠাতে যা দেখা গেলো তা ছিলো হতভাগ হওয়ার মতো বিষয় শিশুটির বুক থেকে শুরু করে নাভীর নিচ পর্যন্ত এমন ভাবে কেটেছে যে ভেতরের যা ছিল তা বেরিয়ে গেছে এই দেখে পরীক্ষা দিতে আসা কয়েকজন মেয়ে অজ্ঞান ও অনেকেই কান্নায় ভেঙে পরলো আমিও ব্যাতিক্রম ছিলাম না। সাথে সাথেই শিশুটি মারা গেল। ভাবতে ভাবতে বাসায় আসলাম কি হয়ে গেল চোখের সামনে ! রুবেলের মতই সবারই ভাবনা তাহলে কি দরকার ছিল ফায়ার সার্ভিসের এই সদস্যদের, এখানে নিরাপত্তার নামে বসে থাকার জন্য। যদি তারা মাঝিদের বিশৃঙ্খলা আর যাত্রী ও পানিতে থাকা শিশুদের সাবধানতা অবলম্বন না করাতে পারে। আজ কোথায় আমাদের মনুষ্যত্ব? কোথায় জাতির বিবেক, কিভাবে হবে মনুষ্যত্বের বিকাশ? আর কতো মায়ের বুক খালি হবে এই ধরনের লোভী রাক্ষসরুপী মানুষের লোভের কবলে পরে। তাই স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ একটু এগিয়ে আসুন খেয়াঘাটের বিশৃঙ্খলা এড়ানোর চেষ্টা করুন। একদিনতো মরতেই হবে। আরো ভালো কিছু করুন মানুষের নিরাপত্তার ও কল্যাণের জন্য। এই ঘটনা দেখার পরে বাসায় ফিরে রুবেল অসুস্থ হয়ে পরে।চোখের সামনে দেখা হাসিখুশি প্রানচঞ্চল একটি শিশুর করুণ মৃত্যু। শুধুই ভেসে উঠে তার স্মৃতিতে বারবার।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..

এ জাতীয় আরো খবর পড়ুন

All rights reserved © 2019 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY sdsubrata.info
Translate »