রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:০০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম:
সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের প্রচেষ্টায় উন্নয়ন হচ্ছে জামালপুর ইউপি সদস্য ও তার সহচর কর্তৃক ধর্ষিত হয়ে বিধবার আত্মহত্যা! দূর্নীতি বিরোধী শুদ্ধি অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে নীলফামারিতে র‌্যালী ও সমাবেশ জামালপুরের মেলান্দহে ধান বোঝাই ট্রাক্টর উল্টে চালকের মৃত্যু রাশিদুলের দুটি কিডনিই বিকল,মানবিক সাহায্যের আবেদন ঝালকাঠিতে ইলিশ নিধন অপরাধে তিন জেলেকে কারাদন্ড  ঝালকাঠিতে ইলিশ মাছ  নিয়ে পালানোর নালায় পড়ে প্রবাসীর মৃত্যু দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে নীলফামারীতে র‌্যালী ও সমাবেশ ধামরাই প্রেসক্লাবের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন সাঁথিয়া সরকারি হাই স্কুলে প্রশ্নপত্র না থাকায় নির্বাচনী পরীক্ষা দিতে পারেনি ১৮৯জন শিক্ষার্থী বেড়ায় ভ্রাম্যমানে জেল জরিমানা ইলিশসহ কারেন্ট জাল জব্দ সাটুরিয়ায় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে সিএনজির চাঁদা তুলা বন্ধ আওয়ামীলীগের স্লোগান জয় বাংলা নয়, এটি মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি: আকম মোজাম্মেল হক জামালপুরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কণিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিন পালিত আবরার হত্যা ও সমসাময়িক রাজনীতি নিয়ে বাংলাদেশ কংগ্রেসের উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তারা সবাই জনগণের চাকর: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি রূপগঞ্জ ইউপি’র নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন ভুঁইয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা সাটুরিয়ার জান্নায় পল্লী বিদ্যুতের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত জাবিতে দোয়া মাহফিল ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণের মাধ্যমে শেখ রাসেলের জন্মদিন পালন ধামরাইয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
সাটুরিয়ায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ৬৭টি পুজা মন্ডপে শারদীয়

সাটুরিয়ায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ৬৭টি পুজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব চলছে

ফাইল ছবি

মোঃ ইউনুছ আলী, জেলা প্রতিনিধি মানিকগঞ্জঃ মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পুজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসবে মোট ৬৭টি প্রতিমা মন্ডপ তৈরী করা হয়েছে। পুজা মন্ডপগুলি যেখানে তৈরী করা হয়েছে সেগুলি হলো যথাঃ বরাঈদ ইউনায়নে ৩টি, দিঘুলিয়া ইউপিতে ৬টি, দরগ্রাম ইউপিতে ১২টি, বালিয়াটি ইউপিতে ১৩টি, হরগজ ইউপিতে ৪টি, তিল্লী ইউপিতে ৮টি, সাটুরিয়া ইউপিতে ৮টি, ধানকোড়া ইউপিতে ১২টি ও ফুকুরহাটি ইউনিয়নে ১টিসহ মোট ৬৭টি। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে যতগুলি উৎসব আছে তন্মধ্যে সবচেয়ে বড় আনন্দ ও উৎসব হচ্ছে শারদীয়া দূর্গোৎসব কিংবা প্রতিমা উৎসব। আবার সবচেয়ে ব্যথা ও শোক হচ্ছে এ প্রতিমাতেই। কারণ নিজ হাতে গড়ে তাদের দশ দিনের কর্মময় জীবন শেষে নিজ হাতেই প্রতিমা বিসর্জন দিতে হয়, তাই এটা সত্যিই খুবই করুন দৃশ্য। কিন্ত কিছুই করার নেই, এটা তাদের ধর্মের বিধান, তাই। এ প্রতিমায় নানা উৎসব ও ভজনের কাজ শুরু হয়েছে গত শুক্রবার ষষ্ঠি পুজা শেষ করে। এ আনন্দ একটানা সপ্তমী, অষ্ঠমী, নবমী ও দশমীতে চলবে। তবে অষ্টমী ও দশমীতে সবচেয়ে বেশী আনন্দ উৎসব হয় বলে জানান পুজা প্রেমিকগণ। আগামী ৮ অক্টোবর রোজ মঙ্গলবার সন্ধা পর্যন্ত শেষ দশমীর পুজা করে বিজয়া দশমীতে শারদীয় দূর্গাপুজা বা বড় পুজাকে (প্রতিমাকে) বিসর্জন দিবে নদীর জলে বা নদী বিনে যে কোন পানিতে ডুবিয়ে বিসর্জন দিবে তাদেরকে । এ উৎসব এক বছর পর হয়তো কারও জীবনে আরো দেখা হতে পারে একাধিক বার। এ উৎসব প্রদর্শনীতে মুসলমানসহ নানা ধর্মের লোক জনকে দেখা যায়। সুতরাং ধর্ম যার যার আর উৎসব সবার।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter

এ জাতীয় আরো খবর পড়ুন

All rights reserved © 2019 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »