রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:০০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম:
সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের প্রচেষ্টায় উন্নয়ন হচ্ছে জামালপুর ইউপি সদস্য ও তার সহচর কর্তৃক ধর্ষিত হয়ে বিধবার আত্মহত্যা! দূর্নীতি বিরোধী শুদ্ধি অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে নীলফামারিতে র‌্যালী ও সমাবেশ জামালপুরের মেলান্দহে ধান বোঝাই ট্রাক্টর উল্টে চালকের মৃত্যু রাশিদুলের দুটি কিডনিই বিকল,মানবিক সাহায্যের আবেদন ঝালকাঠিতে ইলিশ নিধন অপরাধে তিন জেলেকে কারাদন্ড  ঝালকাঠিতে ইলিশ মাছ  নিয়ে পালানোর নালায় পড়ে প্রবাসীর মৃত্যু দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে নীলফামারীতে র‌্যালী ও সমাবেশ ধামরাই প্রেসক্লাবের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন সাঁথিয়া সরকারি হাই স্কুলে প্রশ্নপত্র না থাকায় নির্বাচনী পরীক্ষা দিতে পারেনি ১৮৯জন শিক্ষার্থী বেড়ায় ভ্রাম্যমানে জেল জরিমানা ইলিশসহ কারেন্ট জাল জব্দ সাটুরিয়ায় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে সিএনজির চাঁদা তুলা বন্ধ আওয়ামীলীগের স্লোগান জয় বাংলা নয়, এটি মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি: আকম মোজাম্মেল হক জামালপুরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কণিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিন পালিত আবরার হত্যা ও সমসাময়িক রাজনীতি নিয়ে বাংলাদেশ কংগ্রেসের উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তারা সবাই জনগণের চাকর: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি রূপগঞ্জ ইউপি’র নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন ভুঁইয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা সাটুরিয়ার জান্নায় পল্লী বিদ্যুতের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত জাবিতে দোয়া মাহফিল ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণের মাধ্যমে শেখ রাসেলের জন্মদিন পালন ধামরাইয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
সুর হারিয়ে মৃত্যু পথযাত্রী হালুয়াঘাটের পল্লব একটি

সুর হারিয়ে মৃত্যু পথযাত্রী হালুয়াঘাটের পল্লব একটি সংগীতের মৃত্যু

ফাইল ছবি

হালুয়াঘাট প্রতিনিধিঃ পেশায় একজন গানের শিক্ষক। ২০ বৎসর যাবৎ নিয়োজিত এই পেশায়। এক সময় ওয়াল্ড ভিশন ও কারিতাসেও চাকরি করতেন। একজন ভালো মানের শিল্পী ও গানের শিক্ষক হিসেবে রয়েছে যার অনেক কদর। যার সুরে মুগ্ধ হয়ে আলোকিত হয়েছেন হালুয়াঘাট, ধোবাউরা ও কলমাকান্দা উপজেলার শত শত শিক্ষার্থী। অভিভূত হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। নিজের হাতে গড়া পিদিম সংগীত একাডেমি নামে বিদ্যালয়টি সেটিও এখন অচল। যার কথা বলছি সেই ব্যক্তিটির নাম পল্লব স্নাল (৪৭)।
বাড়ি ৪নং সদর হালুয়াঘাটের প্রশ্চিম কালিয়ানীকান্দা গ্রামে। সামারিথান প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দক্ষিন পার্শ্বে। গানের শিক্ষক পল্লব আজ জীবনের সকল গানের সুর হারিয়ে ধুঁকে ধুঁকে মৃত্যুর প্রহর গুনে চলেছেন। বাইপাস সার্জারি করে বুকে ২টি রিং পড়িয়ে কোনমতে নিঃশ্বাসটুকু নিতে পারছেন। শুধু তাই নয়, হৃদ রোগসহ নানান রোগে আক্রান্ত হয়ে পল্লবের চেহেরা এখন প্রায় কংকালসার হয়ে উঠেছে।
চিকিৎসা কাজে জায়গা জমি সব বিক্রি করে হয়েছেন এখন সর্বশ্বান্ত। গানের শেষ সম্বল হারমোনিয়ামটিও বিক্রি করে দিয়েছেন বলে জানা যায়। শুক্রবার সরজমিনে পল্লবের সাথে কথা বলে জানা যায়, ছয়মাস যাবৎ রোগ শোকে জর্জরিত সে। ডাক্তার বলেছে হার্ট ব্লক হয়েছে। তাই ঢাকার আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতাল থেকে দুটি রিং পড়িয়ে নিয়েছেন। এরপরও লিভারে সমস্যা রয়েছে পল্লবের। গলায় আর গানের সুর নেই। শরীর দুর্বল হয়ে যাচ্ছে। যা টাকা পয়সা ছিলো সব শেষ।
এখন আর ঠিকমতো চিকিৎসাও করাতে পারছেনা পল্লব। এর পরেও পল্লব বাঁচতে চায়। নিজের জন্যে না হলেও তার সন্তানদের জন্যে হলেও বাঁচার স্বপ্ন রয়েছে। কথা বলার এক ফাঁকে পল্লবের ছোট্ট পুত্র ক্লাস ওয়ানে পড়ুয়া কাব্য রিছিল বাবার গলায় জরিয়ে ধরেন। কাব্য বুঝতে পারছেনা হয়তো তার বাবার এই করুন পরিনতি। মৃদু হেঁসে পুত্র কাব্যকে সান্তনা দেন পল্লব। তিনি বলেন, গানের শিক্ষার্থীরা প্রতিদিনই ফোন দেয়। খোঁজ খবর নেয়। কিন্তু আমি কি আর কখনো গান করতে পারবো? পল্লব তার সু’চিকিৎসার জন্যে স্থানীয় এমপি মহোদয়সহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। আবেগ
তাড়িত হয়ে পল্লব বলেন, ভিক্ষা তো করতে পারবোনা কখনো! পল্লবের স্ত্রী উৎকৃষ্টা রিছিল বলেন, আমার একটা সুন্দর জীবন ছিলো! সুন্দর একটা স্বপ্ন ছিলো! যা আজ আর নেই। আমি এই জীবন আশা করিনি কখনো! পল্লবকে লক্ষ্য করে তিনি বলেন, ওর দিকে চেয়ে থাকতেই কষ্ট লাগে আমার। আমার যা কিছু ছিলো সব বিক্রি করে দিয়েছি। প্রতি সপ্তাহে ১ হাজার টাকার ঔষধ লাগে। আমৃতু চালিয়ে যেতে হবে এই ঔষধ। আমি ঋণগ্রস্থ হয়ে পড়েছি। অনেক টাকা ঋন করেছি। উৎকৃষ্টা বলেন, আমি সকলের সহযোগিতা চাই।
সহযোগীতা করতে ছাইলে ইনবক্স এ জানাবেন প্লীজ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter

এ জাতীয় আরো খবর পড়ুন

All rights reserved © 2019 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »