রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:০১ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম:
সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের প্রচেষ্টায় উন্নয়ন হচ্ছে জামালপুর ইউপি সদস্য ও তার সহচর কর্তৃক ধর্ষিত হয়ে বিধবার আত্মহত্যা! দূর্নীতি বিরোধী শুদ্ধি অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে নীলফামারিতে র‌্যালী ও সমাবেশ জামালপুরের মেলান্দহে ধান বোঝাই ট্রাক্টর উল্টে চালকের মৃত্যু রাশিদুলের দুটি কিডনিই বিকল,মানবিক সাহায্যের আবেদন ঝালকাঠিতে ইলিশ নিধন অপরাধে তিন জেলেকে কারাদন্ড  ঝালকাঠিতে ইলিশ মাছ  নিয়ে পালানোর নালায় পড়ে প্রবাসীর মৃত্যু দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে নীলফামারীতে র‌্যালী ও সমাবেশ ধামরাই প্রেসক্লাবের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন সাঁথিয়া সরকারি হাই স্কুলে প্রশ্নপত্র না থাকায় নির্বাচনী পরীক্ষা দিতে পারেনি ১৮৯জন শিক্ষার্থী বেড়ায় ভ্রাম্যমানে জেল জরিমানা ইলিশসহ কারেন্ট জাল জব্দ সাটুরিয়ায় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে সিএনজির চাঁদা তুলা বন্ধ আওয়ামীলীগের স্লোগান জয় বাংলা নয়, এটি মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি: আকম মোজাম্মেল হক জামালপুরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কণিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিন পালিত আবরার হত্যা ও সমসাময়িক রাজনীতি নিয়ে বাংলাদেশ কংগ্রেসের উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তারা সবাই জনগণের চাকর: তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি রূপগঞ্জ ইউপি’র নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সালাহউদ্দিন ভুঁইয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা সাটুরিয়ার জান্নায় পল্লী বিদ্যুতের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত জাবিতে দোয়া মাহফিল ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণের মাধ্যমে শেখ রাসেলের জন্মদিন পালন ধামরাইয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
সোনাগাজী ৮ নং আমিরাবাদ তিনটি ওয়ার্ডের স্মার্ট

সোনাগাজী ৮ নং আমিরাবাদ তিনটি ওয়ার্ডের স্মার্ট কার্ড বিতরণে বিশৃঙ্খলা: আহত ৫

ফাইল ছবি

ফেনী জেলা প্রতিনিধিঃ সোনাগাজী ৮নং আমিরাবাদ ইউনিয়নের ৩ টি ওয়ার্ডের স্মার্ট কার্ড বিতরণে চরম বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছে। শনিবার (১ই জুন ) আহম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আহম্মদপুর নুর নবী উচ্ছ বিদ্যালয়ে স্মাট কার্ড বিতরণ করা হয়। শনিবার স্মার্ট কার্ড নিতে আসা মহিলারা বেশী সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। নিয়ম শৃঙ্খলার অবনতি, ধাক্কা, মারমারি, পদপৃষ্ঠ হওয়াসহ হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। গত শুক্রবার আমিরাবাদ ইউনিয়নের তিনটি ওয়ার্ডে রাতে মাংকিং করে শনিবার সকাল ৭ ঘটিকার সময় থেকে তিনটি ওয়ার্ডে স্মার্ট কার্ড বিতরণের কথা ঘোষণা করা হয়। গতকাল শনিবার সকাল ৭ টা থেকে স্মার্ট কার্ড বিতরণ করার ঘোষণা দেওয়া হলেও যথা সময়ে স্মাট কার্ড বিতরণ করতে পারেনি নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তারা। আমিরাবাদ ইউনিয়নে স্মার্ট কার্ড বিতরণের পূর্বে সোনাগাজী উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কে সহযোগিতা করার জন্য অবগতি পত্রও দেওয়া হয়ে ছিলো। নির্বাচন অফিসের অবগতি পত্র পেয়েও ৮ নং আমিরাবাদ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান স্মার্ট কার্ড বিতরণের জন্য আমিরাবাদের গার্লস স্কুল ও মাদ্রাসার উম্মত বড় মাঠ থাকার পরও ইউপি চেয়ারম্যান আহম্মপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নুর নবী চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ে স্মার্ট কার্ড বিতরণের জন্য স্থান নির্ধারণ করেন। অন্য দিকে নুর নবী চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভবনের নির্মাণ কাজের জন্য আগের পুরাতন ভবনের ইট কনায় ভরপুর ছিলো স্কুল মাঠের অধিকাংশ জায়গা। বাঁকি অংশটুকুতে কোনো রকম ছোট ছোট দুটি তেরপাল দিয়ে জনসাধারণ লাইনে দাড়ানোর জন্য বাঁশ দিয়ে কোনো বেস্টনি দেওয়া হয়নি। শনিবার ভোরেই স্মার্ট কার্ড নেওয়ার জন্য বিড় জমাতে থাকেন তিনটি ওয়ার্ডের হাজার হাজর মহিলা ও পুরুষ। তার মাঝে হঠাৎ বৃষ্টি হওয়াতে স্কুল মাঠে জমে থাকা কাদা মাটি পানিতে মহিলারা তাদের ছোট বাচ্চাদের নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা দাড়িয়ে থাকতে হয়। সকাল ৭ টা থেকে স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও অব্যবস্থাপনার কারণে সকাল ১০ টা থেকে স্মার্ট কার্ড বিতরণ কাজ আরম্ভ হয়। প্রথম ধাপে স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হয় মহিলাদেরকে দিয়ে। স্মার্ট কার্ড নিতে আসা পুরুষ ও মহিলাদের মধ্যে পদদলিত,ধাক্কা ধাক্কি,হাতাহাতিতে ও মারামারিতে মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছেন ৫জন। এর মধ্যে যাদের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন রহিমা বেগম(৩৫),জুলেখা বেগম(৬০),মরিয়ম বেগম(৪০), আব্দুর রহমান(৬৫), কালা মিয়া (৫০) সহ আরো কয়েকজন। স্কুল মাঠের দক্ষিণ পাশে দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে স্মার্ট কার্ড নিতে আসা রহিমা বেগম পুরুষ মহিলাদের মাঝে পদদলিত হয়ে কাঁদা মাটির মধ্যে পড়ে যায়। এসময় এক ব্যক্তি স্কুল অফিসে এসে চেয়ারম্যান সহ স্কুল অফিসে উপস্থিত সবার সামনে মহিলাটা পদদলিত হওয়ার কথা জানালে স্কুল অফিস থেকে দৌড়ে ঘটনাস্থলে যান মুক্তি যোদ্ধা কমন্ডারের সন্তান জনাব নিজাম উদ্দিন ও আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ ওমর ফারুক। পরে স্কুল মাঠ থেকে তারা মহিলাটাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। তখন অনেকে অভিযোগ করে ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, মহিলাটার বিষয়ে চেয়ারম্যান এর সামনেই জানানো হলে তিনি চেয়ার থেকে একটি বারের জন্যও উঠে এসে মহিলাটার খোজ খবর নেন নি। আমরা তীব্র নিন্দা জানাই। অনেকে বেসামাল পরিস্থিতি দেখে স্মার্ট কার্ড না নিয়ে বাড়ীতে ফিরে যায় । আহম্মদপুর স্কুলে এ সব ৩,৪,৫ নং ওয়ার্ডের এক সাথে পুরুষ ও মহিলাদের স্মার্ট কার্ড বিতরণে চরম বিশৃঙ্খলার খবর শুনার পর সোনাগাজী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও ইউপি চেয়ারম্যান বেলা ১১ টার সময় স্কুল অফিসে আসেন। একই সাথে তিনটি ওয়ার্ডের কয়েক হাজার লোককে স্মার্ট কার্ড বিতরণ করায় সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান স্মার্ট নিতে আসা ভুক্তভোগীরা। প্রতিটি ওয়ার্ডে ১ দিন করে স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হলে এতো সমস্যা হতোনা বলেও জানান তারা। এদিকে স্মার্ট কার্ড নিতে আসা ঘন্টার পর ঘন্টা দাড়িয়ে থাকা নারী ও পুরুষ ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করে বলেন, আমাদের চেয়ারম্যান স্কুল অফিসে বসে নির্বাচন কর্মকর্তাদের মাধ্যমে অবৈধ ভাবে টোকেন নিয়ে দিয়ে তার পরিচিতদের কে স্মার্ট কার্ড নিয়ে দিয়েছেন। অথচ আমরা ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাড়িয়ে কস্ট করতেছি। স্মার্ট কার্ড সকাল ৭ টার পরিবর্তে ৪ ঘন্টা সময় পিছিয়ে কেন স্মার্ট কার্ড বিতরণ আরম্ভ হলো? এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাচন অফিসের এক কর্মকর্তা বলেন, ভাই আমরা আপনাদের ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কে ছিঠি দিয়েছিলাম। আপনাদের চেয়ারম্যান ও মেম্বার যদি যুক্তি পরামর্শ করে আগে থেকে স্কুল মাঠে বাঁশ দিয়ে বেস্টনি দিয়ে লাইনে দাড়ানোর ব্যবস্থা ও জেনারেটর এর সংযোগ প্রধান করে রাখতো তাহলে বিদ্যুৎ না থাকলেও আমরা জেনারেটরের মাধ্যমে আমাদের সার্ভার চালু করে নির্ধারিত ঘোষিত সময় সকাল ৭ টা থেকেই স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা আরম্ভ হতো। তাহলে মহিলাদের এমন পরিস্থিতি হতো না আমরাও নিরাপদে কাজ করে যেতাম। স্মার্ট কার্ড বিতরণে বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে জানতে চেয়ারম্যান এর সাথে বার বার তার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করার চেস্টা করলেও তার সাথে যোগাযোগ করা যায় নি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার এবং লাইক করুন..
visitor counter

এ জাতীয় আরো খবর পড়ুন

All rights reserved © 2019 দেশের গর্জন | Desher Garjan
Design & Developed BY Subrata Sutradhar
Translate »